default-image

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়ায় টিকিট ছাড়াই পণ্যবাহী ট্রাক জোরপূর্বক ফেরিতে তোলার চেষ্টার সময় বাধা দেওয়ায় পন্টুনের লস্কর মোহসিন মোল্লাকে (২৯) মারধরের অভিযোগ উঠেছে। আজ শুক্রবার গোয়ালন্দ ঘাট থানায় মো. বিপ্লব ও তিন–চারজন অজ্ঞাতনামা দালালের বিরুদ্ধে এ অভিযোগে মামলা করেছেন মোহসিন মোল্লা।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, মারধরের ঘটনাটি ঘটে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে দৌলতদিয়ার ৩ নম্বর ফেরিঘাটে। মোহসিন মোল্লা ঘাটের ৭ নম্বর ফেরির পন্টুনের লস্কর। গতকাল রাত ১০টা থেকে তিনি ঘাটে টিকিট চেকারের কাজে নিয়োজিত ছিলেন।

এজাহারে আরও বলা হয়েছে, রাত সাড়ে ১১টার দিকে ৩ নম্বর ঘাট থেকে প্রায় ১৫০ গজ দূরে সড়কের কাঁচা রাস্তায় একটি পণ্যবাহী ট্রাক ফেরিতে ওঠার প্রস্তুতি নেয়। এ সময় ওই ট্রাক পারাপারের টিকিট ছিল না। টিকিট কাটতে বললে কয়েকজন দালালের সঙ্গে তাঁর বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে দালালের টিকিট ছাড়াই জোরপূর্বক ট্রাকটি ফেরিতে তোলার চেষ্টা করলে মোহসিন মোল্লা বাধা দেন। এ সময় সংঘবদ্ধ দালাল চক্র তাঁকে কিল-ঘুষি মারতে শুরু করে। স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে দালালেরা ভয়ভীতি দেখিয়ে চলে যায়।

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনার পর পন্টুনের ইনচার্জ মখলেছুর রহমান স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় মোহসিনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কিছুটা সুস্থ হলে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে মোহসিন মামলা করেন।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন সংস্থার (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া কার্যালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক ফিরোজ শেখ বলেন, দিনের বেলায় সাধারণ পরিবহন পারাপার বন্ধ থাকায় রাত হলেই পণ্যবাহী গাড়ি পার করতে বেপরোয়া হয়ে উঠে দালাল চক্র। টিকিট না কেটে জোরপূর্বক ওই ট্রাক ফেরিতে ওঠানোর চেষ্টার সময় কর্তব্যরত লস্কর বাধা দিলে তাঁকে মারধর করা হয়।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল তায়াবীর বলেন, সরকারি কাজে বাধা ও মারধরের অভিযোগে মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত দালালকে ধরতে পুলিশ মাঠে আছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন