default-image

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়ার ব্যস্ততম ৫ নম্বর ঘাটে ফেরি ভিড়তে গিয়ে স্রোতের তোড়ে একাধিক ফেরির মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হয়। এতে পন্টুন ভেঙে গতকাল শুক্রবার দুপুরের পর ঘাটটি বন্ধ হয়ে যায়। শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌ–রুটে ফেরি পারাপার বন্ধ থাকায় ওই বাড়তি চাপ তৈরি হয় দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া ঘাটে। এতে উভয় ঘাটে গাড়ির লম্বা সারি তৈরি হয়।

গতকাল শুক্রবার দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাটুরিয়া প্রান্তে প্রায় চার কিলোমিটার গাড়ির দীর্ঘ সারি। লাইনে অধিকাংশ যাত্রীবাহী বাস ও পণ্যবাহী গাড়ি। ঢাকাসহ বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলগামী কয়েক শ গাড়ি লম্বা লাইন ধরে ফেরিতে ওঠার অপেক্ষায়। গরমে যানবাহনের যাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

দৌলতদিয়ায় গিয়ে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার ৫ নম্বর ঘাটে ফেরির ধাক্কায় পন্টুন ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তখন কোনোরকমে ফেরিতে যানবাহন ওঠানামা করলেও গতকাল দুপুরে স্রোতের তোড়ে ফেরির নিয়ন্ত্রণ রাখতে সমস্যা হলে আরেক দফায় পন্টুন ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বেলা তিনটার দিকে পুনরায় ফেরির ধাক্কায় পন্টুন ক্ষতিগ্রস্ত হলে ঘাটটি বন্ধ হয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

মাগুরাগামী একটি পরিবহনের যাত্রী আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘প্রায় তিন ঘণ্টা পর ফেরিতে ওঠার সুযোগ পাই। মাগুরা যাব বলে কষ্ট হলেও বাসে বসে ছিলাম। আমার মতো এ রকম বহু মানুষ দীর্ঘ সময় আটকে থেকে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।’

পাটুরিয়া ঘাট এলাকার লালন ও এসএম পরিবহনের ঘাট তত্ত্বাবধায়ক মইনুল হোসেন বলেন, সাধারণত সপ্তাহের শেষ দিন বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে ঘাটে চাপ পড়ে। তবে কয়েক সপ্তাহ ধরে বৃহস্পতি ও শুক্রবার অতিমাত্রায় যানজট তৈরি হচ্ছে। সেই সঙ্গে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি রুটের অধিকাংশ গাড়ি এই রুট দিয়ে চলাচল করায় বাড়তি চাপ পড়ছে।

বিআইডব্লিউটিসির আরিচা কার্যালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) আবদুস সাত্তার বলেন, স্রোতে ফেরি পারাপারে তুলনামূলক বেশি সময় লাগছে। এর মধ্যে গতকাল দুই দফায় দৌলতদিয়ার ৫ নম্বর ঘাটের পন্টুন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় বিকেল থেকে ঘাটটি বন্ধ করে দেওয়া হয়।

মন্তব্য পড়ুন 0