বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত বৃহস্পতিবার দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে এজাজ আহমেদের করোনাভাইরাসের শনাক্তকরণের পরীক্ষার জন্য তাঁর নমুনা সংগ্রহ করে কুষ্টিয়ায় ল্যাবে পাঠানো হয়। পরে পিসিআর ল্যাব থেকে গতকালের পাঠানো প্রতিবেদনে তাঁ করোনা পজিটিভ উল্লেখ করা হয়। এজাজ আহমেদ উপজেলার তারাগুনিয়া শালিমপুর গ্রামের নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন। তিনি কুষ্টিয়া-১ (দৌলতপুর) আসনের সাবেক সাংসদ ও দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফাজ উদ্দিন আহমেদের ছোট ছেলে।

মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে এজাজ আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, ২২ আগস্ট তিনি শরীরে জ্বর অনুভব করেন। এরপর সর্দি হয়। করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দিলে তিনি পজিটিভ শনাক্ত হন। বর্তমানে জ্বর না থাকলেও শরীরে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব করছেন। বসে থাকতে পারছেন না। চিকিৎসকের পরামর্শে তিনি ব্যবস্থাপত্র নিয়ে বাড়িতেই থাকছেন।

জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটি সূত্র জানায়, জেলায় গতকাল পর্যন্ত ১৪ হাজার ৫০২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ২ হাজার ৭১৬ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। তাঁদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ১১২ জন এবং মারা গেছেন ৬০ জন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন