default-image

সিলেট মহানগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের দ্বিতীয় দিনের অভিযানে ১০৭টি যানবাহনের বৈধ কোনো কাগজপত্র না থাকায় ডাম্পিংয়ে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি অতিরিক্ত আরোহী এবং হেলমেট ব্যবহার না করায় ৪৯টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত মহানগর পুলিশের আওতাধীন নগরের ছয়টি প্রবেশমুখসহ আটটি মোড়ে এই অভিযান পরিচালিত হয়। এর আগে গতকাল বুধবার থেকে সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ বাস্তবায়নে মহানগর পুলিশের আওতাধীন এলাকাগুলোতে বিশেষ অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।
বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সিলেট মহানগর পুলিশের আওতাধীন দক্ষিণ সুরমার তেমুখী বাইপাস, কোম্পানিগঞ্জ বাইপাস, সুরমা বাইপাস, শ্রীরামপুর বাইপাস, পারাইরচক বাইপাস, দক্ষিণ সুরমার অতিরবাড়ি (মহাসড়ক) বাইপাস, মেন্দিবাগ ও চৌহাট্টা মোড়ে তল্লাশিচৌকি বসানো হয়।

বিজ্ঞাপন


সিলেট মহানগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানোর এবং সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ বাস্তবায়নে বুধবার থেকে মহানগর পুলিশের আওতাধীন এলাকাগুলোতে বিশেষ অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। আটটি তল্লাশিচৌকিতে ৪২টি নিবন্ধনবিহীন সিএনজিচালিত অটোরিকশাসহ মোট ১০৭টি যানবাহন জব্দ করে ডাম্পিংয়ে পাঠানো হয়। এ ছাড়া মোটরসাইকেলে তিনজন আরোহী, হেলমেটবিহীন মোটরসাইকেল আরোহী, লাইসেন্সবিহীন চালকসহ সড়ক পরিবহন আইনে ৪৯টি প্রসিকিউশন দাখিল করা হয়।
সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (গণমাধ্যম) বি এম আশরাফ উল্যাহ বলেন, নিয়মিত দায়িত্বের পাশাপাশি তল্লাশিচৌকির মাধ্যমে নম্বরবিহীন যানবাহন, নিষিদ্ধঘোষিত যানবাহন, হেলমেটবিহীন মোটরসাইকেলচালক ও মোটরসাইকেলে তিনজন আরোহীদের বিরুদ্ধে অভিযান জোরদার করা হয়। এর পাশাপাশি নগরের বাসিন্দা ও পথচারীদের সচেতন করতে মাইকিং করা হচ্ছে। এই অভিযান অব্যাহতভাবে চলবে বলে জানান তিনি।

মন্তব্য পড়ুন 0