default-image

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেছেন, দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে, ধর্মের নামে বিএনপি, জামায়াতসহ একটি মহল গন্ডগোল লাগিয়ে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে দেশকে পিছিয়ে দেওয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। দেশবাসীকে এদের বিরুদ্ধে সজাগ ও সতর্ক থাকতে হবে। তিনি বলেছেন, ধর্মকে ব্যবহার করে নৈরাজ্য সৃষ্টিকারীরা কখনো সফল হবে না।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আজ শুক্রবার দুপুরে মন্ত্রী হাছান মাহমুদ নিজের নির্বাচনী এলাকা রাঙ্গুনিয়া উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে এক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন। মন্ত্রীর ঐচ্ছিক তহবিল থেকে অনুদান প্রদান, উপজেলা পরিষদ থেকে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের মধ্যে হুইলচেয়ার ও মৎস্য চাষ প্রযুক্তি সম্প্রসারণ প্রকল্পের আওতায় স্থানীয় মৎস্যচাষিদের মধ্যে বাইসাইকেল বিতরণ উপলক্ষে এ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

বিজ্ঞাপন

ইসলামের নামে নৈরাজ্য করে মানুষের ঘরবাড়ি ও গাড়ি পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, তারা হাটহাজারী ভূমি অফিসে অগ্নি হামলা চালিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র পুড়িয়ে দিয়েছে, ফায়ার সার্ভিসে হামলা করে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে, এই বিষয়গুলো কখনো ইসলাম সমর্থন করে না। তিনি আরও বলেন, ‘যারা যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর চেষ্টা করেছে, যারা স্বাধীনতাবিরোধী, সেই বিএনপি-জামায়াত চক্র এখনো দেশের বিরূদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। আর তাদের সহযোগিতায় সুযোগ সন্ধানের অপেক্ষায় থাকা একটি মহল ইসলামের নামে গন্ডগোল সৃষ্টি করে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চায়।’

এদিকে বাসসের খবরে বলা হয়, রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলা অডিটরিয়ামে আজ শুক্রবার দুপুরে ‘সাংবাদিকতায় বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ’ কর্মশালার সমাপনী দিনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, গণমাধ্যম সঠিকভাবে কাজ না করলে বহুমাত্রিক সমাজ ও গণতান্ত্রিক সমাজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (পিআইবি) আয়োজিত এ কর্মশালায় রাঙ্গুনিয়া, রাউজান, কাপ্তাই, রাজস্থলী ও কাউখালী উপজেলার সাংবাদিকেরা অংশ নেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন