default-image

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে এক নারীকে (৩০) রাস্তা থেকে ধরে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে ওই নারীর নগ্ন ছবি তুলে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবি করা হয়। এ ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে দুজনের নাম উল্লেখ আজ মঙ্গলবার কালীগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

উপজেলার নলতা ইউনিয়নের ভুক্তভোগী ওই নারী বলেন, শনিবার রাত আটটার দিকে তিনি এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে নিজের বাড়ি ফিরছিলেন। বাড়ি থেকে আধা কিলোমিটার দূরে একটি বাগানের কাছে পৌঁছালে দুজন পেছন দিক থেকে তাঁকে ধরে জোর করে বাগানের মধ্যে নিয়ে যান। সেখানে তাঁর শ্লীলতাহানির পর ধর্ষণের চেষ্টা চালানো হয়। কিন্তু ব্যর্থ হয়ে তাঁকে নগ্ন করে ছবি তোলেন। পরে ১০ হাজার টাকা দাবি করে বলেন, না দিলে এ ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

ওই নারী জানান, তাঁর স্বামীকে নিয়ে ওই রাতেই তিনি কালীগঞ্জ থানায় যান। সেখানে বিস্তারিত উল্লেখ করে একটি অভিযোগ করে। পুলিশ বিষয়টি গোপন রেখে তদন্তে নামে। সোমবার গভীর রাতে এক নম্বর অভিযুক্ত খলিলুর রহমানকে আটক করে। এরপর তিনি মঙ্গলবার থানায় এসে অভিযুক্ত দুজনকে আসামি করে মামলা করেছেন।

মামলা তদন্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) গোবিন্দ আকর্ষণ বলেন, এ ঘটনায় খলিলুর রহমান (২৬) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁকে আজ মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত অব্যাহত রয়েছে। অন্য আসামিদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা সম্ভব হবে বলে তিনি আশা করছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন