বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মির্জাগঞ্জে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে গত শনিবার সকালে মির্জাগঞ্জ থানায় ভুক্তভোগী ছাত্রীর মা বাদী হয়ে ওই ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা করেন। এ খবর প্রথম আলোসহ বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হলে বিষয়টি নজরে আসে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতাদের। এ ঘটনার দুদিন পর গতকাল সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের কারণ দেখিয়ে ওই ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ওই শিক্ষার্থী উপজেলার মজিদবাড়িয়া ইউনিয়নের একটি এলাকায় খালার বাসায় থেকে লেখাপড়া করত। গত শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মেয়েটির খালা বাসায় ছিলেন না। এ সময় সুমন খান বাসায় ঢুকে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। মেয়েটির চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে সুমন পালিয়ে যান।

মির্জাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ার হোসেন তালুকদার বলেন, ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে অভিযুক্ত সুমন খান পলাতক। তাঁকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন