default-image

এক নারীকে ধর্ষণ এবং ধর্ষণের ভিডিও দিয়ে জিম্মি করে টাকা আদায়ের অভিযোগে গতকাল রোববার বিকেলে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে গাজীপুরের বাসন থানার পুলিশ। গ্রেপ্তার নয়ন কুমার ঘোষ (৩০) দিনজপুরের বিরগঞ্জ থানার ঘোষপাড়া এলাকার সুকুমার ঘোষের ছেলে।

ওই নারী গাজীপুর সিটি করপোরেশন এলাকায় থাকেন। তাঁর অভিযোগ, তাঁর স্বামী দুই বছর আগে মারা যান। স্বামীর রেখে যাওয়া বাড়ি, ট্রাক ভাড়া আর ইটভাটার আয়ের অংশ দিয়ে তিন সন্তান নিয়ে সংসার চলে তাঁর। গত বছরের ২৮ জানুয়ারি তাঁর বাসার তৃতীয় তলার ভাড়াটে নয়ন কুমার ঘোষ ভাড়া দেওয়ার কথা বলে ঘরে ঢুকে তাঁকে ধর্ষণ করে সেই ভিডিও ধারণ করেন।

ধর্ষণের ঘটনায় অভিযোগ করা হলে নয়ন ভিডিও প্রকাশ করা এবং ওই নারীর সন্তানদের ক্ষতি করার হুমকি দেন। এরপর নয়ন তাঁকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। একসময় তাঁর কাছে ২০ লাখ টাকা দাবি করেন নয়ন। টাকা না দিলে আবার ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন। পরে ভয়ে বাধ্য হয়ে স্বামীর রেখে যাওয়া ট্রাক দুটি বিক্রি করে ৩০০ টাকার নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর গ্রহণ করে ২০ লাখ টাকা নয়নের হাতে তুলে দেন তিনি। তখন নয়ন বলেন যে ধর্ষণের ভিডিওটি তিনি ডিলিট করে দিয়েছেন।

এরপর নয়ন কিছুদিনের জন্য তাঁদের গ্রামের বাড়ি দিনাজপুরে চলে যান। কয়েক দিন আগে নয়ন আবার দিনাজপুর থেকে ফিরে এসে বলেন যে বাড়ি বিক্রি করে তাঁকে ৫০ লাখ টাকা দিতে হবে। টাকা না দিলে তাঁর সন্তানদের অ্যাসিড মারবেন তিনি। পরে তিনি বাধ্য হয়ে রোববার সকালে গাজীপুরের বাসন থানায় একটি ধর্ষণের মামলা করলে পুলিশ নয়নকে গ্রেপ্তার করে।

বাসন থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান বলেন, গ্রেপ্তার নয়নকে রোববার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে গাজীপুর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন