default-image

ধর্ষণ মামলায় রাজশাহী রেলস্টেশনের সহকারী স্টেশনমাস্টার মঈন উদ্দিন ওরফে আজাদকে (৪২) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার রাতে নগরের বোয়ালিয়া এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মঈন উদ্দিন রাজশাহী রেলস্টেশনের সহকারী স্টেশনমাস্টার। তাঁর বাড়ি নগরের শিরোইল এলাকায়।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মণ বলেন, আসামিকে আদালতে সোপর্দ করার প্রস্তুতি চলছে। তিনি আরও বলেন, ধর্ষণের বিষয়টি আসামি অস্বীকার করলেও ঘটনার সঙ্গে তাঁর সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে। এরপরই তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গত ১৮ জানুয়ারি রাতে ধর্ষণের অভিযোগে এক গৃহবধূ (২৫) বাদী হয়ে রাজশাহী মহানগরের বোয়ালিয়া মডেল থানায় মামলাটি করেন। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ট্রেনে যাতায়াতের পথেই সহকারী স্টেশনমাস্টার মঈন উদ্দিনের সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়। এরপর তাঁদের মধ্যে ফেসবুক মেসেঞ্জারে কথা হতো। মঈন উদ্দিন ওই নারীকে রেলওয়েতে চাকরি দেওয়ার কথা বলে আট লাখ টাকা চান। আগাম দুই লাখ টাকাও নিয়েছিলেন তিনি। রেলওয়েতে একটি চাকরির নিয়োগ পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতিমূলক বই দেওয়ার কথা বলে ১৭ জানুয়ারি ওই গৃহবধূকে নিজের বাসায় ডাকেন। ওই নারী বাসায় গিয়ে দেখেন কেউ নেই। পরে ফাঁকা বাসায় মঈন উদ্দিন তাঁকে ধর্ষণ করেন। ধর্ষণের পর ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য মঈন উদ্দিন ওই নারীকে হুমকিও দেন।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) মিহির কান্তি গুহ বলেন, গ্রেপ্তার হওয়ার বিষয়টি শোনেননি, এই প্রথম শুনলেন। দাপ্তরিকভাবে তাঁকে জানানো হবে। গ্রেপ্তার হলে নিয়ম অনুযায়ী প্রথমেই তাঁকে প্রত্যাহার করা হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন