default-image

রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলায় গৃহবধূকে ধর্ষণের দায়ে রেজয়ান আলী (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া তাঁকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আজ রোববার দুপুরে রংপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত-২-এর বিচারক মো. রোকনুজ্জামান এ রায় ঘোষণা দেন।

মামলার বিবরণ ও আদালত সূত্রে জানা যায়, ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূর স্বামী বাড়িতে ছিলেন না। তিনি ঢাকায় রিকশা চালাতেন। বাড়িতে দেড় বছরের ছেলেসন্তানকে নিয়ে থাকতেন ওই গৃহবধূ। ২০০৪ সালের ২ মার্চ রাতে ঘরের বাইরে বের হন তিনি। এ সময় আগে থেকে ওত পেতে থাকা রেজয়ান আলী একা পেয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণ করেন। পরে তাঁর চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। তখন রেজয়ান পালিয়ে যান। পরদিন ৩ মার্চ রেজয়ানকে আসামি করে বদরগঞ্জ থানায় ধর্ষণের মামলা করেন ওই গৃহবধূ

ঘটনার ১৬ বছরেরও বেশি সময় পর আজ রোববার এই মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত-২-এর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) জাহাঙ্গীর হোসেন। তিনি বলেন, রায় ঘোষণার সময় আসামি রেজয়ান আলী পলাতক ছিলেন। তাঁর অনুপস্থিতিতে বিচারক তাঁকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন। এ ছাড়া জরিমানার এক লাখ টাকা আদায় করে ওই গৃহবধূকে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0