বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত বুধবারের এই ট্রলারডুবিতে নিখোঁজ ১০ জনের মধ্যে গৃহিণী জেসমিন আক্তার ও তাঁর তিন সন্তান রয়েছে। জেসমিনের ভাই বিল্লাল হোসেন মুঠোফোনে বলেন, তাঁর বোন জেসমিন ও বোনের বড় মেয়ে তাসমিম আক্তারকে (১৫) খুঁজে পাওয়া গেছে। ৮ বছরের তামিম খান ও ১৪ মাস বয়সী তাসফিয়া আক্তার এখনো নিখোঁজ। দুর্ঘটনার পর থেকে প্রতিদিনই তাঁরা ট্রলার নিয়ে আশপাশের এলাকায় স্বজনদের খোঁজ করছিলেন। আজ সকালে ট্রলার দিয়ে খুঁজে দেখার সময় তাঁরা দুর্ঘটনাস্থলের সিপাহিবাড়ি ঘাটে দুটি ভাসমান লাশ দেখতে পান। আর বাকি দুটি লাশ পাওয়া গেছে বক্তাবলি ঘাট এলাকায়।

গত বুধবার এমভি ফারহান-৬ নামের লঞ্চের ধাক্কায় প্রায় ৭০ জন যাত্রী নিয়ে ট্রলারটি ডুবে যায়। তখন থেকে অন্তত ১০ যাত্রী নিখোঁজ ছিলেন। ফায়ার সার্ভিস, নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড ও বিআইডব্লিউটিএর ডুবুরি দল গত টানা চার দিনা চেষ্টা করেও নিখোঁজ কাউকে খুঁজে পায়নি। পঞ্চম দিনের উদ্ধার অভিযান শুরু হওয়ার আগে স্বজনেরাই নিখোঁজ চারজনকে খুঁজে পেলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন