প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, আজ সকালে ৭ হাজার বস্তা সিমেন্ট নিয়ে একটি বাল্কহেড মুন্সিগঞ্জের ক্রাউন সিমেন্ট ফ্যাক্টরি এলাকা থেকে পাবনার নগরবাড়ী দিকে যাচ্ছিল। সিমেন্টবোঝাই বাল্কহেড মুন্সিগঞ্জ লঞ্চ ঘাট এলাকার কাছাকাছি এলে ঢাকামুখী যাত্রীবাহী লঞ্চ এমভি জাহিদ-৩ বাল্কহেডের ওপরে উঠিয়ে দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই ডুবে যায় বাল্কহেড।

বাল্কহেডে থাকা শ্রমিক জুয়েল রানা বলেন, তিনিসহ পাঁচজন শ্রমিক ছিলেন। দুর্ঘটনার পর স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাঁরা তিনজন উদ্ধার পান। তবে তাদের সহকর্মী শরিফুল ও নুর ইসলাম নিখোঁজ আছেন।

পরে মুক্তারপুর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশ পরিদর্শক মো. লুৎফর রহমান দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, যে লঞ্চের ধাক্কায় বাল্কহেডটি ডুবে যায় সেই লঞ্চে করে শরিফুল ও নুর ইসলাম ঢাকায় পৌঁছান। তাঁরা কল করে পুলিশকে বিষয়টি জানিয়েছেন।

মো. লুৎফর রহমান সকালে প্রথম আলোকে বলেছিলেন, সকাল পৌনে ৬টার দিকে ঘটনাটি ঘটে। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করা হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন