default-image

ফরিদপুর শহরের কুমার নদসংলগ্ন পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) বেড়িবাঁধের ওপর নির্মিত গুরুত্বপূর্ণ একটি সড়কের অন্তত ৩০০ মিটার ধসে পড়েছে। এতে ওই সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সড়কটি পশ্চিমে অম্বিকাপুর মহল্লায় অবস্থিত পল্লিকবি জসীমউদ্‌দীনের কবরস্থান থেকে শুরু হয়ে কুমার নদের দক্ষিণ পাশ দিয়ে পূর্ব দিকে লক্ষ্মীপুর চুনাঘাটা সেতু পর্যন্ত তিন কিলোমিটার বিস্তৃত। এই সড়কের প্রস্থ ১৩ ফুট। এটি পাউবোর বেড়িবাঁধের ওপর নির্মাণ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

গত বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে গিয়ে দেখা যায়, ওই সড়কের চুনাঘাট এলাকায় মোহাম্মদ আলীর বাড়ির সামনে সাত থেকে আট ফুট ধসে পড়েছে। ফলে সড়কের দক্ষিণ পাশের মোহাম্মদ আলী, জাকির হোসেন ও শেখ করিমের বাড়ি এবং সড়কের উত্তর পাশের হাফিজার শেখ ও মিন্টুর ছাপরাঘর হুমকির মুখে পড়েছে।
এলাকাবাসী জানায়, গত সোমবার থেকে এ ধসে পড়ার ঘটনা ঘটতে শুরু করে। এ ব্যাপারে পাউবো ও এলজিইডির কর্মকর্তাদের জানানো হলেও তাঁরা কোনো ব্যবস্থা নেননি।

ওই এলাকার বাসিন্দা শিক্ষক জাকির হোসেনের স্ত্রী রেশমা বেগম বলেন, ‘আমরা আতঙ্কের মধ্যে রয়েছি। চিন্তায় সারা রাত ঘুমাতে পারি না, কখন রাস্তাসহ ঘরবাড়ি ভেঙে পড়ে যায়।’

ওই এলাকার বাসিন্দা মো. আলেপ শেখ বলেন, তিন মাস আগে পাউবোর উদ্যোগে খননযন্ত্র বাসিয়ে নদ খনন করা হয়। তখন নদের উত্তর পাড় থেকে দক্ষিণ পাড়ে সড়ক ঘেঁষে গভীর গর্ত করে মাটি কাটায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

পাউবোর ফরিদপুর কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী সুলতান মাহমুদ বলেন, ‘সড়কের একটি বড় অংশ ধসে পড়ার খবর আমি শুনেছি। তবে এখনো আমি সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করিনি। পানি উন্নয়ন বোর্ডের বাঁধের ওপর সড়ক নির্মাণ করেছে এলজিইডি। সংস্কারের বিষয়ে তাদেরও গুরুত্ব দেওয়া উচিত।’

এ বিষয়ে এলজিইডির ফরিদপুর কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী কে এম ফারুক হোসেন বলেন, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ওই স্থানে সড়কের প্রায় ৩০০ মিটার ধসে পড়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0