default-image

ঢাকার ধামরাই উপজেলায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছুরিকাঘাতে অটোরিকশাচালক নিহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার ধামরাই পৌর এলাকার কায়েতপাড়া মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রিকশাচালকের নাম আল-আমিন (২৩)। তিনি কায়েতপাড়ার বজলুর রহমানের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কায়েতপাড়া এলাকায় আল-আমিনের অটোরিকশার সঙ্গে পৌর এলাকার গোয়ারীয়াপাড়ার আল-মাহফুজের (৩৬) মোটরসাইকেলের ধাক্কা লাগে। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে তর্কবিতর্ক ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে মাহফুজ তাঁর ব্যাগ থেকে ছুরি বের করে আল-আমিনের পেটসহ বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে পালিয়ে যান। এতে আল-আমিন মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

বিজ্ঞাপন

আল-মাহফুজ গেল ধামরাই পৌরসভা নির্বাচনে দুই নম্বর ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করে পরাজিত হয়েছেন। তিনি পেশায় একজন পল্লিচিকিৎসক।

ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আতিকুর রহমান বলেন, মাহফুজ পল্লিচিকিৎসক হওয়ায় তাঁর কাছে থাকা ব্যাগে ছুরি ছিল। হাতাহাতির একপর্যায়ে তিনি ব্যাগ থেকে সেই ছুরি বের করে আল-আমিনকে আঘাত করে পালিয়ে যান। এ সময় উপস্থিত লোকজন তাঁকে আটকের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এ ঘটনায় নিহত আল-আমিনের পরিবারের পক্ষ থেকে হত্যা মামলা করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন