স্থানীয় লোকজন জানান, দেওয়ান দেলোয়ার তাঁর পালক ছেলে সোহেল রানাকে কোনো জমি বা সম্পত্তির ভাগ দেননি। তবে সোহেল বাবার একটি জমিতে ঘর বানিয়ে বসবাস করতেন। বিভিন্ন সময়ে ওই জমি সোহেলের নামে লিখে দেওয়ার বিষয়ে বাবার সঙ্গে সোহেলের বাগ্‌বিতণ্ডার ঘটনা ঘটেছে।

প্রতিবেশী শুকুর আলী বলেন, আজ সকালে সোহেলের পরিবারের সদস্যদসহ প্রতিবেশীরা আলোচনা করে সোহেলকে ওই জমি লিখে দেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেন। এরপরই সোহেল ওই জমিতে ঘর তুলতে মাটি খোঁড়ার কাজ শুরু করেন। এ সময় সোহেল অপর আরেকটি জমির কয়েক ফুট জায়গা নিয়ে ঘর তোলার কাজ করলে দেলোয়ার বাঁধা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সোহেল মাটি খোঁড়ার কাজে ব্যবহৃত শাবল দিয়ে দেলোয়ারের মাথায় আঘাত করেন। পরে দেলোয়ারকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

জানতে চাইলে ধামরাই থানার কাওয়ালীপাড়া বাজার তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক রাসেল মোল্লা প্রথম আলোকে বলেন, ঘটনার পরপরই ওই বাড়ি থেকে সোহেল ও সোহেলের স্ত্রীকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন