default-image

রাজবাড়ী সদর উপজেলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে যুবক খুন হয়েছেন। সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়নের দুর্গাপুর গ্রামের বাধাইলাপুল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ওই যুবকের নাম সুজন তালুকদার (২৮)। তিনি মিজানপুর ইউনিয়নের গঙ্গা প্রসাদপুর গ্রামের বাসিন্দা। সুজন নদী থেকে বালু তোলার কাজে জড়িত ছিলেন। আহত দুজন হলেন রিমন মল্লিক ও ইমরানুল ইসলাম। দুজনকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে রিমনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। আহত দুজনের বাড়ি গঙ্গাপ্রসাদপুর গ্রামে।

সুজনের স্ত্রী সালমা আক্তার বলেন, সুজন রোজা ছিলেন। বাড়িতে ইফতার করেন। ইফতারের পর বাড়ি থেকে গাড়ি নিয়ে বের হন। যেতে নিষেধ করেছিলেন তিনি। এতে সুজন বলেছিলেন, কিছুক্ষণের মধ্যেই ফিরবেন। পরে তিনি ফোন পেয়ে জানতে পারেন সুজনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ইমরানুল বলেন, তাঁরা ইফতারের পর একসঙ্গে বসে গল্প করছিলেন। এ সময় একদল লোক এসে তাঁদের ওপর হামলা চালায়। কিন্তু কারা এ হামলা চালিয়েছে, তাঁদের চিনতে পারেননি।

রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, একজনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অপর দুজন। সুজনের লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির প্রক্রিয়া চলছে। তবে হত্যাকাণ্ডের কারণ এখনো জানা সম্ভব হয়নি। ঘটনাস্থল থেকে দুটি ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। এসব অস্ত্র হত্যাকাণ্ডে ব্যবহার করা হয়েছে কি না, তা এখনো বলা যাচ্ছে না।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন