বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বৈশাখ আহম্মেদকে চিকিৎসার জন্য প্রথমে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁর অবস্থার অবনতি হওয়ায় বগুড়ার মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী, প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৈশাখ আহম্মেদ আজ সকালের দিকে নিজ বাড়িতে কবুতরের খাবার দিচ্ছিলেন। এ সময় মুখোশধারী তিন যুবক বাড়ির উঠানে বৈশাখকে ছুরিকাঘাত করে মোটরসাইকেলে করে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে স্বজনেরা বৈশাখকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

বর্তমান চেয়ারম্যান মাকসুদুল হকের ছেলে রাশেদুজ্জামান ও তাঁর সহযোগীরা আমাকে ছুরিকাঘাত আহত করেছে।
বৈশাখ আহম্মেদ

আহত বৈশাখ আহম্মেদ প্রথম আলোকে বলেন, ‘গোসাইবাড়ি ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান মাকসুদুল হকের ছেলে রাশেদুজ্জামান ও তাঁর সহযোগীরা আমাকে ছুরিকাঘাত আহত করেছে।’

পরাজিত প্রার্থীর ওপর হামলা চালানোর অভিযোগ অস্বীকার করে রাশেদুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, ‘তৃতীয় ধাপে গত ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী ও তাঁর সমর্থকেরা আমার বাবাকে কুপিয়ে আহত করে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। ওই মামলা থেকে রক্ষার জন্যই ছুরিকাঘাতের নাটক সাজানো হয়েছে।’

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, নৌকার প্রার্থীর ছেলেকে ছুরিকাঘাতের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দুই প্রার্থীর মধ্যে বিরোধ রয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন