default-image

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় যুবলীগ নেতাকে ফেনসিডিল ও ইয়াবা বড়িসহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ সোমবার বেলা ১১টার দিকে তাঁকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে রোববার রাতে নিজ বাড়ি থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।
গ্রেপ্তার যুবলীগ নেতা হলেন ফোরহাদ হোসেন। তিনি ধুনট উপজেলা যুবলীগের সহসম্পাদক। তাঁর বাড়ি উপজেলা সদরপাড়া গ্রামে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ফোরহাদ হোসেন নিজ বাড়ির পাশে ফেনসিডিল ও ইয়াবা বড়ি বিক্রি করছিলেন। এমন খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে চার বোতল ফেনসিডিল ও ৩০টি ইয়াবা বড়িসহ তাঁকে আটক করে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ফোরহাদ হোসেনের নামে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করে। সেই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আজ সোমবার আদালতের মাধ্যমে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়। এ ছাড়া মামলায় ফোরহাদ হোসেনের ছোট ভাই পৌর যুবলীগের সাবেক সভাপতি সোহরাব হোসেনকে (৩৫) আসামি করা হয়েছে। মাদক বিক্রির অভিযোগে কয়েক দফা সোহরাব হোসেন পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়ায় দল থেকে তাঁকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

ফোরহাদ হোসেনের দাবি, পুলিশ তাঁকে মিথ্যা অভিযোগে গ্রেপ্তার করেছে। তিনি মাদক সেবন করেন। তবে মাদক বিক্রি করেন না।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, ফোরহাদ হোসেন এলাকায় একজন চিহ্নিত মাদক কারবারি। তাঁকে মাদকসহ গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন