বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, মোহনপুর গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে হাসান আলী গাজীপুরের একটি পোশাক কারাখানায় চাকরি করেন। সেখানে চাকরির সুবাদে প্রায় ৭ বছর আগে পরিচয় হয় গাজীপুরের মেয়ে ফরিদার খাতুনের সঙ্গে। পরে দুজনের বিয়ে হয়। এই দম্পতির ঘরে একটি ছেলে ও একটি মেয়ে রয়েছে।

সম্প্রতি হাসান আলীর বাবা সাইফুল ইসলাম অসুস্থ হয়ে পড়নে। তাঁকে সেবাযত্ন কারার জন্য ফরিদা খাতুনকে চাকরি ছেড়ে মোহনপুর চলতে আসতে হয়। তিনি চাকরি ছেড়ে গ্রামের বাড়িতে এসে থাকতে রাজি ছিলেন না। এ নিয়ে গতকাল রোববার রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। আজ ভোররাত চারটার দিকে বাড়ির একটি ঘরে তাঁর ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায়। খবর পেয়ে পুলিশ সকাল নয়টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপাসিন্ধু বালা বলেন, গৃহবধূর লাশ দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন