বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে দেওয়ার দাবিতে এ সমাবেশ ডেকেছিল বিএনপি। এর আগে একই দাবিতে গত ২৮ ডিসেম্বর শহরের নওযোয়ান মাঠে সমাবেশ ডাকে জেলা বিএনপি। কিন্তু ওই স্থানে একই সময়ে জেলা যুবলীগ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্‌যাপন উপলক্ষে সমাবেশ আহ্বান করে। বিএনপি পরে শহরের এ-টিম মাঠে সমাবেশ করার ঘোষণা দেয়। কিন্তু ওই স্থানেও জেলা ছাত্রলীগ সমাবেশ ডাকে। এ অবস্থায় জেলা প্রশাসন পৌরসভা এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে। ফলে বিএনপির সমাবেশ স্থগিত হয়।

হাফিজুর রহমান বলেন, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে করোনা পরিস্থিতির দোহাই দিয়ে সরকার বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। বিএনপির সমাবেশ বানচাল করার উদ্দেশ্যেই এ ধরনের বিধিনিষেধ দেওয়া হয়েছে। ২৮ ডিসেম্বর যুবলীগ ও ছাত্রলীগ বিএনপির সমাবেশস্থলে সমাবেশ আহ্বান করে একই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে। সরকারের এ ধরনের কর্মকাণ্ড নির্লজ্জ ও ফ্যাসিবাদী আচরণের শামিল ও নিন্দনীয় দৃষ্টান্ত।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন