বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দক্ষিণ রামেরকান্দি সামাজিক কবরস্থান ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি রেজাউল করিম বলেন, বার্ধক্যেরকারণে আবদুল জলিল (৮৪) গত ৩০ মার্চ এবং মিরাজ আলী (৭০) তার কিছুদিন আগে চলতি বছরের প্রথম দিকে মারা যান। পরে তাঁদের মরদেহ দক্ষিণ রামেরকান্দি সামাজিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

মৃত আবদুল জলিলের ছেলে মো. শামছুদ্দিন দাঁত ব্রাশ করতে করতে তাঁর বাবার কবরের কাছে গিয়ে দেখেন যে তাঁর বাবার কবরসহ দুটি কবর খোঁড়া এবং ভেতরে কোনো লাশ বা কঙ্কাল নেই।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মৃত আবদুল জলিলের ছেলে মো. শামছুদ্দিন মঙ্গলবার সকালে দাঁত ব্রাশ করতে করতে তাঁর বাবার কবরের কাছে গিয়ে দেখেন যে তাঁর বাবার কবরসহ দুটি কবর খোঁড়া এবং ভেতরে কোনো লাশ বা কঙ্কাল নেই। পরে বিষয়টি তিনি এলাকাবাসীকে জানান। সংবাদ পেয়ে নকলা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) চন্দন কুমার পালসহ পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ মুশফিকুর রহমান আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রথম আলোকে বলেন, কঙ্কাল চুরির সংবাদ পেয়ে থানার পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে এ ঘটনায় কেউ থানায় অভিযোগ দেননি। পুলিশ ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন