default-image

শেরপুরের নকলা পৌরসভার আসন্ন নির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘন করে মহড়া, বড় ব্যানার প্রদর্শন ও দেয়ালে পোস্টার সাঁটানোর দায়ে এক মেয়র ও দুই কাউন্সিলর প্রার্থীকে মোট ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জাহিদুর রহমান ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

এই তিনজন হলেন মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ মিজানুর রহমান এবং কাউন্সিলর প্রার্থী মো. জরিপ হোসেন ও মো. জিয়াউল হক।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মিজানুর রহমান (নারিকেলগাছ প্রতীক) শতাধিক মোটরসাইকেল, কার-পিকআপ ভ্যান নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় বের হন। নকলা পৌর শহরে মহড়া করেন। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জাহিদুর রহমান ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে মহড়া করার দায়ে মিজানুর রহমানকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন। একই সঙ্গে ভবিষ্যতে নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে প্রচারণার কাজ করার নির্দেশ দেন।  

বিজ্ঞাপন

অপর দিকে আচরণবিধি লঙ্ঘন করে পৌর শহরে রঙিন বড় ব্যানার প্রদর্শন করার দায়ে ২ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী মো. জরিপ হোসেনকে (বোতল প্রতীক) তিন হাজার টাকা এবং সরকারি-বেসরকারি ভবনের দেয়ালে পোস্টার সাঁটানোর দায়ে ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মো. জিয়াউল হককে (বোতল প্রতীক) দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তিন প্রার্থীই তাৎক্ষণিকভাবে জরিমানার টাকা পরিশোধ করেন।

অভিযান পরিচালনাকালে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাউছার আহাম্মেদ, নকলা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. হাসানুজ্জামানসহ থানার পুলিশ সদস্য ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা আদালতকে সহযোগিতা করেন।

ইউএনও জাহিদুর রহমান তিন প্রার্থীকে জরিমানা করার খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

৩০ জানুয়ারি নকলা পৌরসভায় ভোট গ্রহণ করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন