default-image

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নবজাতককে ফেলে ‘মা-বাবা’ উধাও হওয়ার ঘটনার রহস্যের জট খুলেছে। এ ঘটনায় নবজাতকের বাবা আলী আমজদকে (৩২) গ্রেপ্তারের পর আজ বুধবার তাঁকে জেলা কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

ওই নবজাতকের মা একজন কিশোরী (১৪)। সে সম্পর্কে আলী আমজদের দূর সম্পর্কের শ্যালিকা।

পুলিশ, মামলার বিবরণ ও কিশোরীর পরিবার সূত্র জানায়, আলী আমজদের স্ত্রী সৌদি আরবপ্রবাসী। চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে কিশোরী শ্যালিকাকে নিজের বাড়িতে নিয়ে যান আমজদ। সেখানে ১ মার্চ পর্যন্ত আটকে রেখে তাকে ধর্ষণ করেন তিনি। পরে ভয়ভীতি দেখিয়ে ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য হুমকি দেন। ৭ নভেম্বর কিশোরী জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কন্যাসন্তানের জন্ম দেয়। পরে হাসপাতাল থেকে ওই কিশোরী ও আলী আমজদ উধাও হয়ে যান। এ ঘটনায় কিশোরীর ভাই বাদী হয়ে জগন্নাথপুর থানায় গতকাল মঙ্গলবার রাতে একটি মামলা করেন। রাতেই অভিযুক্ত আলী আমজাদকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জগন্নাথপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, অভিযুক্ত আলী আমজদকে আজ সুনামগঞ্জ জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আর ওই কিশোরীকে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে ৯ নভেম্বর নবজাতক মেয়েকে সমাজসেবা অধিদপ্তর সিলেটের ছোটমনি নিবাসে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0