default-image

সাতক্ষীরায় মায়ের পাশে ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় ১৫ দিনের নবজাতক চুরি হওয়ার ২৮ ঘণ্টা পরও হদিস মেলেনি। আজ শুক্রবার বিকেল চারটা পর্যন্ত নবজাতকের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার হাওয়ালখালী গ্রামের বাড়ি থেকে নবজাতকটি চুরি হয়ে যায়।

চুরি হওয়া ওই নবজাতকের নাম সোহান হোসেন। তার বাবার নাম সোহাগ হোসেন ও মায়ের নাম ফাতেমা খাতুন। তাঁরা হওয়ালখালী গ্রামের বাসিন্দা।

বিজ্ঞাপন

ফাতেমা খাতুন বলেন, ১১ নভেম্বর সাতক্ষীরা শহরের আনোয়ারা ক্লিনিকে জন্ম হয় তাঁর ছেলে সোহান হোসেনের। জন্মের পর সে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে নিয়ে যেতে হয় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। চিকিৎসা শেষে ২৫ নভেম্বর তাঁরা সন্তানকে নিয়ে বাড়ি ফেরেন। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে বারান্দায় ছোট মশারি টানিয়ে তার ভেতরে ছেলেকে ঘুম পাড়ান। একপর্যায়ে পাশে তিনিও ঘুমিয়ে পড়েন। প্রায় ১৫-২০ মিনিট পর তিনি ঘুম থেকে উঠে দেখেন পাশে সন্তান নেই। তারপর থেকে ছেলেকে খোঁজাখুঁজি করে যাচ্ছেন, কিন্তু কোনো সন্ধান পাননি।

এ ব্যাপারে সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান বলেন, হাওয়ালখালী গ্রাম থেকে একটি শিশু চুরির খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে সেখানে একজন উপপরিদর্শককে পাঠানো হয়। পরে রাতে ও আজ শুক্রবার তিনি আবার সেখানে যান। শিশুটিকে কে বা কারা চুরি করেছে, তা খুঁজে বের করার জন্য পুলিশ তদন্তে নেমেছে। তবে এ ঘটনায় কেউ থানায় এখনো অভিযোগ করেননি।

মন্তব্য করুন