বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অসীমের বড় ভাই খোকন আচার্য বলেন, অসীম পেশায় পল্লিচিকিৎসক ছিলেন। উপজেলার বিদ্যাকুট ইউনিয়নে ভৈরবনগর লঞ্চঘাটে তাঁর ফার্মেসি রয়েছে। গতকাল রাতে তাঁর নিখোঁজের খবর সর্বত্র ছড়িয়ে পড়লে ফার্মেসির মালামাল লুট করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। বিষয়টি থানায় জানানো হয়েছে।

স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল রাত আটটার দিকে উপজেলার গোসাইপুর এলাকার তিতাস নদের মনিপুর গ্রাম থেকে ডিঙ্গি নৌকা চালিয়ে গোসাইপুর বাজারের দিকে রওনা হন পল্লিচিকিৎসক অসীম। সে সময় নৌকায় অসীমের সঙ্গে নেপাল সরকার নামের আরও একজন ছিলেন। নদের মাঝামাঝি গেলে বড় একটি বাল্কহেডের সঙ্গে তাঁদের নৌকার ধাক্কা লাগে। এতে নৌকা উল্টে ডুবে যায় এবং অসীম নিখোঁজ হন। তবে নেপাল সরকার সাঁতার কেটে তীরে উঠলেও অসীমের খোঁজ পাওয়া যায়নি। রাতেই নবীনগর উপজেলার ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা অসীমকে উদ্ধারের অভিযান চালান।

রাত ১১টা পর্যন্ত চলে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের উদ্ধারকাজ। আজ সকাল আবার ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা উদ্ধার অভিযান শুরু করেন। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার গোসাইপুর এলাকার তিতাস নদ থেকে অসীমের লাশ উদ্ধার করেন ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।

নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিনুর রশিদ বলেন, ‘নিখোঁজ অসীমের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত অসীমের ফার্মেসি থেকে মালামাল লুট করে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি শুনেছি। ঘটনাস্থলে বিট পুলিশ কর্মকর্তাকে পাঠানো হয়েছে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন