default-image

নরসিংদী পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপির প্রার্থী হারুনুর রশিদের চারটি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী এস এম কাইয়ুমের তিনটি নির্বাচনী প্রচার ক্যাম্পে ভাঙচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ মঙ্গলবার বেলা দুইটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত দুই ঘণ্টাব্যাপী এই সাত ক্যাম্পে ভাঙচুর চালান নৌকার সমর্থকেরা।

এ ঘটনায় আজ সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে সংবাদ সম্মেলন করেন বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী হারুনুর রশিদ। এ সময় লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘নির্বাচনী পরিবেশ এত দিন সুষ্ঠু থাকলেও আজ আওয়ামী লীগ সমর্থকদের নেতৃত্বে শহরে বিভিন্ন স্থানে আমার চারটি ক্যাম্পে ভাঙচুর করা হয়। ক্যাম্পগুলো নরসিংদী পৌর এলাকার সাটিরপাড়া, নাগরিয়াকান্দি, দত্তপাড়া ও কাউরিয়াপাড়া এলাকার। এ সময় আমার পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয় এবং মাইকিংয়ে বাধা দেওয়া হয়।’

আজ মঙ্গলবার বেলা দুইটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত দুই ঘণ্টাব্যাপী এই সাত ক্যাম্পে ভাঙচুর চালান নৌকার সমর্থকেরা।

পরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার ক্যাম্পগুলো ভাঙচুরের সময় রিটার্নিং কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ফোন করে জানিয়েছি। এ বিষয়ে আমরা রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দেব।’
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি সুলতান উদ্দিন মোল্লা, সহসভাপতি মঞ্জুর এলাহী, শহর বিএনপির সভাপতি গোলাম কবির কামাল, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রউফ ফকির প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

এদিকে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী (মোবাইল ফোন প্রতীক) এস এম কাইয়ুম বলেন, দুপুরের দিকে সাটিরপাড়া এবং বিকেলে দত্তপাড়া ও নাগরিয়াকান্দিতে তাঁর তিনটি ক্যাম্প ভাঙচুর করেছেন নৌকার কর্মী-সমর্থকেরা। এ সময় পোস্টার ছিঁড়ে তাতে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। এসব ঘটনায় রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি।

default-image

অভিযোগের বিষয়ে নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী আমজাদ হোসেন বাচ্চু বলেন, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের করা এসব অভিযোগ তিনি শুনেছেন। তবে ওই সময় তিনি গণসংযোগ নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন। ক্যাম্প ভাঙচুরসহ এসব অভিযোগের বিষয়ে তাঁর কিছু জানা নেই।

রিটার্নিং কর্মকর্তা কমল কুমার ঘোষ বলেন, দুপুরের দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থীর একটি ক্যাম্প ভাঙচুরের বিষয়ে লিখিত অভিযোগ তাঁর কাছে এসেছে। অভিযোগ পাওয়ার পরপরই ঘটনাস্থলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে বিএনপি প্রার্থীর পক্ষ থেকে কোনো লিখিত অভিযোগ এখনো পাননি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন