বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১১–এর অধিনায়ক তানভীর মাহমুদ বলেন, গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা চরাঞ্চলে ‘স্বাধীন বাহিনীর’ সদস্য হিসেবে পরিচিত। এলাকায় আধিপত্য বিস্তারসহ সন্ত্রাসী গ্রুপটি চরাঞ্চলে ডাকাতি, হত্যা, চাঁদাবাজি, অগ্নিসংযোগসহ ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে আসছিল। ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে সহিংসতা এড়াতে র‌্যাব নরসিংদীর চরাঞ্চলের তিনটি ইউনিয়নে একযোগে অভিযান পরিচালনা করে। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে স্বাধীন বাহিনীর সদস্যরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে ৩০টি গুলি ছোড়েন, আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা ১২টি গুলি ছোড়ে। তবে এ সময় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। অভিযানে মির্জারচর ইউনিয়ন থেকে স্বাধীন বাহিনীর প্রধান আবদুস সাত্তার ওরফে স্বাধীনসহ ১২ সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ সময় ১টি রিভলবার, ১টি শটগান, ১টি ওয়ান শুটারগান, ২১টি গুলি, ৬টি রামদা, ১টি ছোরা, ১টি কিরিচ, ২টি সামুরাই, ১টি চাপাতি, ৩টি বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট, ৮টি মুঠোফোন ও নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে রায়পুরা থানায় খুন, খুনের চেষ্টা, মাদক মামলাসহ একাধিক অস্ত্র মামলা আছে বলে জানায় র‌্যাব।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন