default-image

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে অবৈধ বালুমহালে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করতে গিয়ে সহকারী কমিশনার (এসি ল্যান্ড) হামলার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এক সেনাসদস্যকে আটক করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার দপ্তিয়র ইউনিয়নের বাটকাটারি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আটক শরীফ উদ্দিন পাশের এলাকা মানিকগঞ্জ জেলার চরকাটারি গ্রামের আবদুস সামাদের ছেলে। তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে সৈনিক পদে কুমিল্লা সেনানিবাসে কর্মরত।

উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, টাঙ্গাইল ও মানিকগঞ্জ জেলার সীমান্তবর্তী প্রত্যন্ত এলাকা বাটকাটারি গ্রামে কিছু লোক একটি বাংলা ড্রেজার বসিয়ে অবৈধভাবে বালু তুলে আসছিলেন। কিছুদিন আগে সেখানে উপজেলা প্রশাসন অভিযান চালায়। সে সময় বালু উত্তোলনের কাজে ব্যবহৃত পাইপ জব্দ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

ওই এলাকায় আবারও অবৈধভাবে বালু তোলার সংবাদ পেয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর পুলিশ ও আনসার নিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে সেখানে যান। প্রত্যন্ত এলাকা হওয়ায় দূরে গাড়ি রেখে প্রায় ১৫ মিনিট হাটাপথে সেখানে পৌঁছাতে হয়। প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে ড্রেজারের মালিকেরা চলে যান। এ সময় বালু উত্তোলনের কাজে নিয়োজিত উজ্জ্বল হোসেন ও জাহাঙ্গীর হোসেন নামের দুজনকে আটক করা হয়।

আটক ব্যক্তিদের নিয়ে ফেরার পথে ওই এলাকার একদল লোক তাঁদের পিছু নেন। এ সময় শরীফ উদ্দিন নামের এক ব্যক্তি সহকারী কমিশনারের (ভূমি) সঙ্গে অসদাচরণ করেন। গালিগালাজের একপর্যায়ে তিনি সহকারী কমিশনার তারিন মাসরুরের ওপর হামলা চালিয়ে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে বালুর মধ্যে ফেলে দেন। এ সময় পুলিশ ও আনসার সদস্যরা তাঁকে আটক করেন।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর বলেন, বালুমহাল থেকে আটক উজ্জ্বল হোসেন ও জাহাঙ্গীর আলমকে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। আটক সেনাসদস্য শরীফ উদ্দিনকে জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে সেনা কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন