বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মানববন্ধন করে স্মারকলিপি দেওয়ার কর্মসূচি ঘোষণা করেছিল নাচোল উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবুল হোসেন ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল রশিদ খানের নেতৃত্বাধীন পক্ষ। আবদুল রশিদ খান বলেন, আবদুল কাদেরের বিরুদ্ধে নারী কেলেঙ্কারি ও নানা দুর্নীতির অভিযোগ আছে। তাঁকে দল ও উপজেলা চেয়ারম্যানের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি ডাকা হয়েছিল। তবে উপজেলা প্রশাসন থেকে ১৪৪ ধারা জারি করায় তা স্থগিত করা হয়েছে। তবে তাঁরা ইউএনওকে স্মারকলিপি দেবেন। তিনি দাবি করেন, আবদুল কাদেরের কুকর্মের জন্যই সম্প্রতি অনুষ্ঠিত নাচোল উপজেলার ইউপি নির্বাচনে দলের ভরাডুবি হয়েছে। দলের কোনো চেয়ারম্যান প্রার্থীই নির্বাচিত হননি।

সম্প্রতি আবদুল কাদেরের সঙ্গে এক নারীর একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। এর পর থেকে তাঁকে দল ও উপজেলা চেয়ারম্যানের পদ থেকে বহিষ্কারের দাবিতে সোচ্চার হয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের একাংশ। তাঁকে দল থেকে বহিষ্কারের সুপারিশ করে কেন্দ্রীয় কমিটিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কমিটি চিঠি দিয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওদুদ।

এ ব্যাপারে আবদুল কাদের মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে নেওয়া কর্মসূচি বন্ধ হয়েছে। এর বেশি কিছু বলতে চাই না।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন