জাতীয় ভোক্তা অধিকার ও সংরক্ষণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, উপজেলার জোনাইল বাজারের মোল্লা ডিপার্টমেন্টাল স্টোর থেকে ৪০০ লিটার, রূপম স্টোর থেকে ১ হাজার লিটার, মিতা স্টোর থেকে ৬০০ লিটার, বিল্লাল স্টোর থেকে ১০০ লিটার ও দেবাশীষ স্টোরের গুদাম থেকে সাড়ে ৪ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করা হয়।

পরে এই পাঁচটি দোকানকে বিভিন্ন অঙ্কের জরিমানা করা হয়। এর মধ্যে মেসার্স দেবাশীষ স্টোরকে সর্বোচ্চ ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

নাটোর র‍্যাব ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন জানান, এসব ব্যবসায়ীরা পূর্বনির্ধারিত দামে তেল কিনে গুদামে মজুত করেছিলেন। তেলের দাম বাড়ার পর ওই ব্যবসায়ীরা তেলের বোতল খুলে খোলা সয়াবিন হিসেবে বর্তমান দামে বিক্রি করছিলেন। অবৈধ মজুত ও অতিরিক্ত মূল্যে বিক্রির অপরাধে ব্যবসায়ীদের জরিমানা করা হয়েছে। পরে জব্দ করা প্রায় সাড়ে ছয় হাজার লিটার তেল স্থানীয় জনগণের কাছে আগের দামে বিক্রি করা হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন