বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সাধারণ সম্পাদক সবুজ জামাদার বলেন, করোনাকালে শহরে দোকানপাট ও অফিস–আদালত বন্ধ থাকায় তাঁদের কাজকর্ম অনেক কমে গেছে। তাঁরা খাবারটুকুও জোগাড় করতে পারছেন না। এ অবস্থায় তাঁদের ছাঁটাই করা হলো। তাঁরা এখন কী করবেন, ভেবে পাচ্ছেন না। এই ছাঁটাই আদেশ প্রত্যাহার না করলে সব হরিজন শহরের পরিচ্ছন্নতার কাজ বন্ধ করে দেবেন। এতে শহর বসবাসের অনুপযোগী হয়ে পড়বে।

ছাঁটাইয়ের বিষয়ে নাটোর পৌরসভার মেয়র উমা চৌধুরী বলেন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে পৌরসভার জনবল কমানোর নির্দেশনা পেয়ে অস্থায়ী ভিত্তিতে নিয়োগ পাওয়া কিছু পরিচ্ছন্নতাকর্মীকে ছাঁটাই করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন