বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে নাটোর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দুর্ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারকাজ শুরু করেন। প্রায় চার ঘণ্টা পর সকাল আটটার দিকে ট্রাকটি রেলপথ থেকে সরানো সম্ভব হয়। পরে রেললাইন পরীক্ষা করে সকাল নয়টার দিকে ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

নাটোর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা আকতার হোসেন বলেন, দুর্ঘটনার সময় ট্রাকটির চালক ও সহকারী ট্রাকে ছিলেন না। ফলে হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে ট্রাকটি দুমড়েমুচড়ে গেছে। ট্রেনের লাইন অক্ষত আছে।

নাটোর রেলস্টেশনের স্টেশনমাস্টার অশোক চক্রবর্তী বলেন, কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনটি ভোররাত চারটার কিছু পরই স্টেশনে দাঁড়ানোর কথা ছিল। এ কারণে তেবাড়িয়া রেলক্রসিংয়ের প্রতিবন্ধক নামানো ছিল। কিন্তু ট্রাকটির চালক বেআইনিভাবে রেলক্রসিংয়ে উঠে পড়ে আটকে যান। এ সময় ট্রেন আসতে দেখে চালক ও সহকারী ট্রাক ফেলে রেখে পালিয়ে যান। পরে দাঁড়ানো ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন