বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্থানীয় লোকজন সূত্রে জানা যায়, ঈশ্বরগঞ্জের আঠারবাড়ি এলাকা থেকে থেকে যাত্রীবাহী একটি মাইক্রোবাস নান্দাইল-কেন্দুয়া সড়ক দিয়ে চৌরাস্তার দিকে আসছিল। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা ইজিবাইকের সঙ্গে মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ইজিবাইকটির একপাশ দুমড়েমুচড়ে যায় এবং এর এক যাত্রী ঘটনাস্থলেই নিহত ও অপর দুজন আহত হন। নিহত যাত্রীর নাম আবদুল খালেক (৬০)। পুলিশ তাঁর বাড়ির ঠিকানা জানাতে পারেনি।

আহত অপর দুই যাত্রীকে নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লক্সে নিয়ে গেলে সেখানে শাহাব উদ্দিন (২২) নামের একজন মারা যান। তিনি নান্দাইল উপজেলার চণ্ডীপাশা ইউনিয়নের বাঁশহাটি গ্রামের বাবর আলীর ছেলে। অপর আহত যাত্রী নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার শিমুলতলা এলাকার আবুল হাশেমের ছেলে মুজিবুর রহমানকে (৩৫) ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

দুর্ঘটনার পর স্থানীয় লোকজন মাইক্রোবাসের চালক মো. শরিফুলকে (৩২) আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছেন। থানা হেফাজতে থাকা শরিফুল বলেন, তিনি সাতজন যাত্রী নিয়ে ঢাকার দিকে যাচ্ছিলেন। কিন্তু ইজিবাইকটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাঁর মাইক্রোবাসকে ধাক্কা দেয়। তখন তাঁর আর কিছুই করার ছিল না।

এ বিষয়ে নান্দাইল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান আকন্দ বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত একজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে এখনো কেউ মামলা করেনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন