default-image

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে চালক ও যাত্রীর ছদ্মবেশে প্রাইভেট কারে করে অভিনব কায়দায় গাঁজা পরিবহনের সময় ১১ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব-১১। বৃহস্পতিবার ভোর সোয়া ৫টায় দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপজেলার কেওঢালা এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে একটি প্রাইভেট কারে তল্লাশির সময় গাঁজাসহ তাঁদের আটক করে র‍্যাব।

তাঁদের কাছ থেকে মাদক পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেট কার, দুটি মুঠোফোন ও নগদ ২ হাজার ৫০০ টাকা জব্দ করা হয়।

দুপুরে র‍্যাব-১১–এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন চৌধুরী স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।  

আটক ব্যক্তিরা হলো লক্ষ্মীপুর সদর থানাধীন রাধাপুর এলাকার মো. আলমগীর ও কুমিল্লার কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানাধীন সুয়াগাজী বাটপাড়া এলাকার মো. রাশেদ।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞপ্তিতে র‍্যাব জানায়, আটক ব্যক্তিরা আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার জন্য পরস্পর যোগসাজশে দীর্ঘদিন ধরে চালক ও যাত্রীর ছদ্মবেশে যাত্রীবাহী প্রাইভেট কারযোগে অভিনব কায়দায় নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য গাঁজা পরিবহন করছিলেন। গোপন সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাব-১১–এর একটি আভিযানিক দল বন্দর উপজেলার কেওঢালা এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে অভিযান পরিচালনা করে সাড়ে ১১ কেজি গাঁজাসহ ওই মাদক ব্যবসায়ীদের আটক করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তাঁরা জানিয়েছেন, অবৈধভাবে দীর্ঘদিন ধরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে প্রাইভেট কারযোগে যাত্রী পরিবহনের আড়ালে চালক ও যাত্রীর সিটের নিচে বিশেষ কৌশলে নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য গাঁজা পরিবহন করে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও নরসিংদীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রয় ও সরবরাহ করছিলেন। মাদক ব্যবসা তাঁদের একমাত্র পেশা। চালক ও যাত্রী হিসেবে পরিচয় তাঁদের ছদ্মবেশ মাত্র। তাঁদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় আইনানুগ কার্যক্রম গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন