default-image

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে একটি সিমেন্ট কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পাঁচজন দগ্ধ হয়েছেন। তাঁদের রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

আজ রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার মদনগঞ্জ এলাকায় অবস্থিত বসুন্ধরা সিমেন্ট কারখানায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী শ্রমিকেরা বলেন, সকালে ওই সিমেন্ট কারখানায় হঠাৎ আগুনে লেগে যায়। এতে ওই কারখানার ভেতরে প্রচুর কালো ধোঁয়ার সৃষ্টি হয়। এ সময় আগুনের তাপে ওই কারখানার পাঁচজন দগ্ধ হন। তাঁদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফখরুদ্দীন ভূঁইয়া প্রথম আলোকে বলেন, কয়লার চুল্লির ঢাকনা খুলতে গেলে আগুন লেগে ওই পাঁচজন দগ্ধ হয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স নারায়ণগঞ্জ অফিসের উপসহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ আরেফিন প্রথম আলোকে বলেন, বসুন্ধরা সিমেন্ট কারখানায় কয়লা গুঁড়া হয়ে হপারে জমা হলে সেখানে তাপ তৈরি হয়। রোববার সকালে শ্রমিকেরা হপার রক্ষণাবেক্ষণের কাজ করার সময় ঢাকনা খুললে গরম তাপ বের হয়ে ওই পাঁচজন দগ্ধ হন। আগুনের তাপে সেখানে কিছু প্লাস্টিক পুড়ে গিয়ে ধোঁয়ার সৃষ্টি হয়।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ পুলিশ ক্যাম্পের পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া প্রথম আলোকে বলেন, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নারায়ণগঞ্জ থেকে দগ্ধ পাঁচজনকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে এনে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁদের শরীরের ৭ থেকে ৩০ শতাংশ পুড়ে গেছে। তিনি জানান, দগ্ধ পাঁচজন হলেন কারখানার মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার সাঈদুজ্জামান সোহাগ (৪০), শ্রমিক মাসুদ রানা (৪০), রাহাতুল ইসলাম (২৮), আবুল কালাম আজাদ (২৮) ও দেওয়ান আলী (৪৫)। সাঈদুজ্জামানের শরীরের ৩০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। অন্যদের শরীরের ৭ শতাংশ পুড়ে গেছে।

মন্তব্য পড়ুন 0