default-image

করোনার মহামারিতে ক্ষতিগ্রস্ত নীলফামারীর ডোমার উপজেলার সেফ গ্রুপ অব স্যানি-মার্ট কোম্পানিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিএমএসএমই প্রণোদনা প্যাকেজ থেকে স্বল্প সুদে ১২ লাখ টাকা ঋণ দেওয়া হয়েছে। এই টাকায় কোম্পানি কাঁচামাল কিনে তাঁদের নারী উদ্যোক্তাদের মধ্যে বিতরণ করছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে নারী উদ্যোক্তাদের মধ্যে ওই কাঁচামাল বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

এ উপলক্ষে উপজেলা শহরের কলেজপাড়ায় অবস্থিত সেফ গ্রুপ অব স্যানি-মার্ট কোম্পানির প্রধান কার্যালয়ে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কাঁচামাল বিতরণের উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহিনা শবনম।

ইউএনও শাহিনা শবনম বলেন, ‘নারীরা এ সমাজের মধ্যমণি। নারীরা গোপন ব্যাংক, তারা টাকা রোজগার করলে সঞ্চয় করে। সংসারের প্রয়োজনে খরচ করে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আপনারা আপনাদের আয় ব্যয় করবেন সন্তানদের শিক্ষায়।’

বিজ্ঞাপন

সভায় সভাপতিত্ব করেন কোম্পানির উদ্যোক্তা, সিইও এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু আসাদ। বক্তব্য দেন সোনালী ব্যাংক ডোমার শাখার ব্যবস্থাপক জান্নাতুন আরিফ, ডোমার থানার ওসি মোস্তাফিজার রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সাহিদ আহমেদ, লক্ষ্মীচাপ উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আজিজুল ইসলাম প্রমুখ।

উদ্যোক্তারা জানায়, করোনার প্রভাব মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিএমএসএমই প্রণোদনা প্যাকেজে কোম্পানি স্বল্প সুদে সোনালী ব্যাংক থেকে ১২ লাখ টাকা ঋণ পেয়েছে। কোম্পানি ওই টাকায় কাঁচামাল কিনে দিচ্ছে চার শতাধিক গ্রামীণ নারী উদ্যোক্তাকে। কাঁচামাল পেয়ে ওই নারী উদ্যোক্তারা নতুন উদ্যমে পুনরায় স্যানিটারি ন্যাপকিন তৈরি ও বাজারজাত করার সুযোগ পেল।

আবু আসাদ নীলফামারীর ১২টি নারী সংগঠন তৈরি করে সেই সংগঠনগুলোকে একেকটি কোম্পানিতে রূপ দিয়েছেন। এসব সংগঠনের ডোমার, ডিমলা, জলঢাকা, কিশোরগঞ্জ ও নীলফামারী সদরের নারী উদ্যোক্তারা বাড়িতে বসে কম খরচে স্যানিটারি ন্যাপকিন তৈরি করছেন। এসব ন্যাপকিন স্বল্প খরচে প্রত্যেক নারী যাতে ব্যবহার করতে পারেন, এ জন্য আবু আসাদের নেতৃত্বে নারী উদ্যোক্তারা তা বাজারজাত করছেন।

নির্বাহী পরিচালক রুবিনা আকতার বলেন, ‘করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া প্রণোদনা প্যাকেজে স্বল্প সুদে ঋণ পেয়ে আমরা পুনরায় জেগে উঠার সুযোগ পেলাম।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন