বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এই ইউপিতে চেয়ারম্যান হতে যাচ্ছেন আমানুল্লাহ। ফলে সদস্যপদের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় মানুষের মধ্যে আলোচনা চলছে। ভোট গ্রহণ হওয়ার কথা ২৮ নভেম্বর।

ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, উপজেলার সীমান্তবর্তী রামচন্দ্রকুড়া ইউপিতে দুটি গ্রাম পানিহাটা ও রামচন্দ্রকুড়া নিয়ে ৬ নম্বর ওয়ার্ড। পানিহাটা গ্রামে ভোটার ৯১৩ ও রামচন্দ্রকুড়ায় ভোটার ৬০১ জন। এই ওয়ার্ডে দুই ভাই ছাড়াও আরও দুই প্রার্থী আছেন।

পানিহাটা গ্রামের ভোটার সাইফুল ইসলাম বলেন, একই গ্রামের দুই ভাই প্রার্থী হয়েছেন। স্থানীয় লোকজন চাইছেন, নিজেদের গ্রাম থেকেই কেউ নির্বাচিত হোক।

প্রার্থিতার ব্যাপারে মাসুদ রানা বলেন, তাঁর বড় ভাই দুইবারের নির্বাচিত সদস্য। এবার তাঁকে ছাড় দিতে অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু তিনি তা মানেননি। তাই তিনিও প্রার্থী হয়েছেন। পরিবারের অধিকাংশ আত্মীয়স্বজন তাঁর পক্ষে আছেন। আর আবদুল জব্বার আলী বলেন, তিনি পরীক্ষিত প্রার্থী। জীবনের বাকি সময়ও নির্বাচন করে যাবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন