বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নাসির উদ্দীন আরও বলেন, ‘এ ঘটনায় যারা ইন্ধন জুগিয়েছে, তারা ভুল বুঝিয়ে ক্ষতি করতে চায়, বিভেদ সৃষ্টি করে সমাজটাকে ভাগ করতে চায়। সেখানে আমরা সবাইকে নিয়ে হাসতে চাই। গান করতে চাই। সেবা করতে চাই। আনন্দ করতে চাই। মানুষে মানুষে বন্ধুত্ব করতে চাই।’

হামলায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা করার বিষয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা নাসির উদ্দীন বলেন, ‘আমরা সামান্য জিনিস নিয়ে এখানে এসেছি। ভালোবাসা জানানোর জন্য, আপনাদের কাছে ক্ষমা চাওয়ার জন্য এসেছি। মুক্তিযুদ্ধের ৫০ বছর যখন উদ্‌যাপন করছি, তখন আপনাদের ওপর জঘন্যতম হামলা হলো, এটি আমাদের জন্য খুবই কষ্টের, খুবই অপমানের।’

পীরগঞ্জে হিন্দুদের বাড়িতে আগুন দেওয়ার বিষয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা নাসির উদ্দীন ইউসুফ বলেন, ‘দেশটা এভাবে চলতে পারে না। আমি মনে করি, এ ঘটনায় প্রশাসনের ব্যর্থতা আছে। প্রশাসনের যদি ব্যর্থতা না থাকত, তাহলে এখানে আগুন লাগত না। এরও সুষ্ঠু তদন্ত হওয়া প্রয়োজন বলে মনে করছি।’

এ সময় নাসির উদ্দীন ইউসুফের সঙ্গে বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটার ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক তৌফিক হাসান, সহসভাপতি কাজী সাঈদ আহমেদ, আন্তর্জাতিক সম্পাদক আবদুল হান্নান, রংপুর বিভাগীয় সম্পাদক আলমগীর কবীর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
মতবিনিময় সভা শেষে বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটার ফেডারেশনের পক্ষ থেকে হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দু পরিবারগুলোর মধ্যে শীতবস্ত্র, শাড়ি ইত্যাদি বিতরণ করা হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন