বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, আবদুস সবুর গত শুক্রবার সকালে সেলুনের উদ্দেশে ঘর থেকে বের হন। এরপর তিনি আর ঘরে ফেরেননি। পরিবারের ধারণা, তাঁকে হত্যা করে পাহাড়ে নিয়ে লাশ ফেলে দেওয়া হয়েছে। তবে নিখোঁজের পর পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় কোনো সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায় গতকাল সকালে জ্বালানি কাঠ সংগ্রহের জন্য এক ব্যক্তি ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি লাশ দেখতে পান। পরে খবর পেয়ে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে।

হাটহাজারী মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আমিরুল মোজাহিদ প্রথম আলোকে বলেন, লাশটি পচেগলে গেছে। লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে গতকাল বিকেলে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়া গেলে ঘটনার বিস্তারিত জানা যাবে। পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন