গত মঙ্গলবার বিকেলে এলাকার মিয়ারচর বাজারে মুস্তফা মিয়া সবজি বিক্রি করতে যান। এ সময় তাঁর সঙ্গে দুই ছেলে মেরাজুল ও খায়রুল ছিল। একপর্যায়ে ছোট ছেলে খায়রুল ইসলাম সেখান থেকে নদীর পাড়ে যায়। সে ফিরে আসতে দেরি করায় মুস্তফা আরেক ছেলেকে আনতে সেখানে পাঠান। এর আধা ঘণ্টা পর দুই ছেলে ফিরে না আসায় তিনি নদীর পাড়ে গিয়ে তাদের পাননি।

মুস্তফা মিয়া ছেলেদের খোঁজ করতে লাগলে স্থানীয় ব্যক্তিরা জানান, নদীতে থাকা একটি বাল্কহেডের ওপরে খায়রুলকে একবার দেখেছেন তাঁরা। পরে বাজার ও আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে খোঁজ করে না পেয়ে সবাই ধারণা করেন, হয়তো দুই ভাই নদীর পানিতে পড়ে ডুবে গেছে। পরের দিন দক্ষিণ বাদাঘাট ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান এরশাদ মিয়া বিষয়টি থানা ও প্রশাসনকে জানান।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন