বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও নিহত শিশুটির পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার সকালে শিশু ফারিহাকে সঙ্গে নিয়ে তাঁর মা রওশনারা বেগম উপজেলা পরিষদের কোয়ার্টারে রান্নার কাজ করতে যান। বেলা তিনটার দিকে সেখান থেকেই নিখোঁজ হয় ফারিহা। রওশনারা ও তাঁর পরিবারের লোকজন ফারিহাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও কোনো সন্ধান পাননি। পরে মেয়ের সন্ধান চেয়ে শহরে মাইকিংও করা হয়। রাত সাড়ে ১০টার দিকে ফারিহার মা রওশনারা বেগম নালিতাবাড়ী থানায় গিয়ে সাধারণ ডায়েরি(জিডি) করেন।

গতকাল রাত থেকে পুলিশ ফারিহাকে উদ্ধারে অভিযান শুরু করে। আজ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পুলিশ গড়কান্দা এলাকার একটি পুকুরে ফারিহার লাশ ভাসতে দেখে। এরপর তারা তার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এ সময় নালিতাবাড়ী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) আফরোজা নাজনীন ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন।

নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বছির আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, এ ঘটনায় ফারিহার মা গতকাল রাতে থানায় জিডি করেছেন। এর পর থেকে শিশুটির সন্ধানে অভিযান চালায় পুলিশ। আজ দুপুরে পুকুর থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়। শিশুটির লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানোর প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

নালিতাবাড়ী সার্কেলের এএসপি আফরোজা নাজনীন প্রথম আলোকে বলেন, লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে শিশুটির শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। তবে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে তাঁর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। পরে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন