বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কচুয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সরদার ইকবাল হোসেন মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে খবর পেয়ে রোববার দুপুরে পুলিশ কলাবাগানের বেড়ের পানিতে ফেলে দেওয়া মেহেদীর মরদেহ উদ্ধার করে। তাঁর গলার নিচে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

গত শুক্রবার সন্ধ্যার পর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন বলে পরিবার জানিয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, দুর্বৃত্তরা অন্তত এক দিন আগে মেহেদীকে হত্যার পর মরদেহ লুকাতে কলাবাগানের বেড়ের পানিতে ফেলে পাতা দিয়ে ঢেকে রেখে যায়। তবে কারা, কী কারণে তাঁকে হত্যা করেছে, সে বিষয়ে পুলিশ এখনো কিছু জানাতে পারেনি। হত্যার কারণ উদ্‌ঘাটনে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন