default-image

নীলফামারীতে আবদুল হালিম (৫৫) নামের এক ইজিবাইকচালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ সোমবার দুপুরে জেলা সদরের চাপড়াসরমজামী ইউনিয়নের ইটাপীড় সেতুসংলগ্ন এলাকায় তাঁর রক্তমাখা লাশটি পড়ে ছিল। তবে তাঁর ইজিবাইকটির (ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা) সন্ধান পাওয়া যায়নি।

আবদুল হালিম চাপড়াসরমজামী ইউনিয়নের লতিফচাপড়া কোরানীপাড়া গ্রামের মৃত আফসার আলীর ছেলে। তাঁর স্ত্রী ও চার মেয়ে রয়েছে।

চাপড়াসরমজামী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান বলেন, ইজিবাইক চালিয়ে জীবীকা নির্বাহ করতেন আবদুল হালিম। প্রতিদিনের মতো গতকাল রোববার সকালে ইজিবাইক নিয়ে বের হন তিনি। রাতে বাড়ি না ফেরায় খুঁজতে শুরু করেন স্বজনেরা। আজ সকাল ১০টার দিকে ইউনিয়নের ইটাপীড় সেতুসংলগ্ন সড়কের ধারে তাঁর রক্তমাখা লাশ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় ব্যক্তিরা। পরে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ তাঁর লাশ উদ্ধার করে। তবে ইজিবাইকটি পাওয়া যায়নি। এলাকাবাসীর ধারণা, ইজিবাইকটি ছিনতাইয়ের জন্য চালক আবদুল হালিমকে হত্যা করা হতে পারে।

নীলফামারী সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহমুদ-উন-নবী বলেন, এ ঘটনায় নিহত হালিমের স্ত্রী ফাতেমা বেগম বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা করেছেন। নিহত আবদুল হালিমের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যা রহস্য উদ্‌ঘাটনের কাজ চলছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন