default-image

খুলনার দিঘলিয়ার একটি ডোবা থেকে তামিম মোল্লা নামের সাত বছর বয়সী এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার বিকেল চারটার দিকে উপজেলার লাখোহাটি গ্রামের একটি ডোবা থেকে হাত–পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় লাশটি পাওয়া যায়।

তামিম উপজেলার বারাকপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের লাখোহাটি গ্রামের মো. তরিকুল মোল্লার ছেলে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মাদ্রাসাপড়ুয়া তামিম বৃহস্পতিবার মাগরিবের নামাজ আদায়ের জন্য বাড়ি থেকে বের হয়। তবে রাত পেরিয়ে গেলেও সে আর বাড়ি ফিরে আসেনি। এ ঘটনায় শুক্রবার সকালে স্থানীয় মসজিদ থেকে শিশুটির নিখোঁজের বিষয়ে মাইকিং করা হয়। পরে বিকেল চারটার দিকে স্থানীয় একটি ডোবা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশটি নারকেলগাছের পাতা দিয়ে ঢাকা ছিল।

দিঘলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান উল্লাহ চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, শুক্রবার বিকেল চারটার দিকে লাখোহাটি গ্রামের একটি ডোবায় হাত-পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় তামিমের লাশ দেখতে পান স্থানীয় লোকজন। সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। তামিমের বাড়ি থেকে এক কিলোমিটার দূরে ডোবাটি অবস্থিত।

ওসি আহসান উল্লাহ চৌধুরী বলেন, শিশুটির লাশ উদ্ধার করে সুরহতাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে কী কারণে শিশুটিকে হত্যা করা হয়েছে, সে বিষয়ে এখনো কিছু জানা যায়নি। পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থা ও র‌্যাবের সদস্যরা ঘটনাস্থলে আছেন। তদন্ত চলছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন