বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পরিবারের সদস্যরা বলেন, মুক্ত থাকলে হারানোর ভয় ও অন্যের ক্ষতি করতে পারেন—এমন আশঙ্কায় তাঁকে এভাবে বন্দী করে রাখা হয়েছে। এই শিকলবন্দী অবস্থায় চলে তাঁর খাওয়াদাওয়া, গোসল, ঘুম, শৌচকার্যসহ সবকিছু। তাঁকে দেখভাল করেন তাঁর মা সেলিনা খাতুন (৪৩)। একমাত্র মাকেই তিনি সহ্য করেন। অন্যরা কাছে গেলে খেপে যান সাঈদ।

সেলিনা খাতুন বলেন, ‘আমরার অল্প কিছু খেত আছিল, ছেলেডার (সাঈদ) চিকিৎসার লাইগ্গা সব বেইচ্চা দিছি। কোনো কাজ হইছে না। অহন খুবই কষ্ট কইরা সংসার চলে। থাহনের ঘরডাও ভাঙা। বৃষ্টির পানি পড়ে। একটি ঘরের লাইগ্গা এমপির সুপারিশসহ প্রশাসনের কাছে গেছিলাম। কিন্তু কাম হইছে না। খুবই কষ্টে আছি। কিছু সাহায্য পাইলে ছেলেডারে চিকিৎসা করানো যাইত। নিজের সন্তানরে শিকল দিয়া বাইন্ধা রাখতে খুবই কষ্ট হয়।’

আবু সাঈদের বাড়ি নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার খারনৈ ইউনিয়নের মধুকুড়া গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের দরিদ্র কৃষক বাবুল মিয়ার ছেলে।

সাঈদের বাবা বাবুল মিয়া অন্যের জমি চাষ ও মজুরি করে সংসার চালান। তিনি জানান, সাঈদ এখন উন্মাদ। ছাড়া পেলেই জিনিসপত্রের ক্ষতিসহ এলাকার মানুষ ও পরিবারের লোকজনকে মারধর করেন। একমাত্র তাঁর মাকে তিনি কিছুটা সহ্য করতে পারেন। তিনি আগুন, পানি, শীত, গরম কোনো অনুভূতিই টের পান না। অনেক সময় খেপে গিয়ে তাঁর শরীরে থাকা কাপড় খুলে ফেলেন। অস্বাভাবিক আচরণ করেন। টাকা না থাকায় এখন দীর্ঘদিন ধরে চিকিৎসাও বন্ধ রয়েছে। তাই বাধ্য হয়ে তাঁকে পায়ে শিকল দিয়ে আটকে রাখা হয়েছে।

মধুকুড়া গ্রামের বাসিন্দা হযরত আলী বলেন, সাঈদকে রাতে বাড়ির বারান্দায় এবং সকালে বাড়ির পাশের একটি আমগাছের সঙ্গে পায়ে শিকল পরিয়ে বন্দী করে রাখা হয়। সেখানেই খাবার দেওয়া হয় তাঁকে। এভাবেই বছরের পর বছর ধরে চলছে সাঈদের শিকলবন্দী জীবন। পরিবারটি দরিদ্র হওয়ায় এখন কোনো চিকিৎসা করাতে পারছেন না। সরকারি কোনো সহযোগিতা পেলে বা সমাজের বিত্তবানেরা এগিয়ে এলে চিকিৎসা করা সম্ভব হতো।

খারনৈ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ওবায়দুল হক বলেন, বিষয়টি তাঁর জানা আছে। সাঈদ প্রতিবন্ধী ভাতা পাচ্ছেন। তাঁর ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে তাঁকে কিছু সহযোগিতা করা হবে।

কলমাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সোহেল রানা বলেন, ‘সাঈদের বিষয়টি আমার জানা ছিল না। এ ব্যাপারে খোঁজখবর নিয়ে তাঁর সুচিকিৎসাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন