default-image

সাতক্ষীরায় সচিব পরিচয় দিয়ে চাঁদা দাবি ও হুমকি দেওয়ার অভিযোগে দায়ের হওয়া একটি মামলার আসামি জামিন পেয়েছেন। সাতক্ষীরার জ্যেষ্ঠ জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান আজ সোমবার আসামির জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন।

জামিনপ্রাপ্ত আসামি হলেন, সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার যাদবপুর কৈখালী গ্রামের গোবিন্দ কুমার মণ্ডল। তিনি জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমানকে মুঠোফোনে হুমকি দিয়েছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, গোবিন্দ কুমার মণ্ডল ২০২০ সালের ৪ নভেম্বর সাতক্ষীরার জ্যেষ্ঠ জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমানের ব্যক্তিগত মুঠোফোন নম্বরে ফোন করে সচিব পরিচয় দিয়ে চাঁদা দাবি করেন এবং হুমকি দেন। এ ঘটনায় জেলা ও দায়রা জজ আদালতের নাজির আবদুল কাদের গাজী বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। ওই মামলায় ৩০ নভেম্বর রাতে শ্যামনগর থেকে পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তার করে। পরে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়।

সাতক্ষীরা আদালতের পুলিশ পরিদর্শক অমল কুমার রায় বলেন, প্রায় দুই মাস কারাভোগের পরও জেলা আইনজীবী সমিতির কোনো সদস্য আসামি গোবিন্দ কুমার মণ্ডলের মামলা পরিচালনায় যুক্ত হননি। জামিনের চেষ্টা না করায় তিনি কারাগারেই ছিলেন। অবশেষে বিচারক শেখ মফিজুর রহমান স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে বন্দী গোবিন্দ মণ্ডলের জামিনের আবেদন সংগ্রহ করেন এবং তাঁকে আইনগত সহায়তা (লিগ্যাল এইড) প্রদানের নির্দেশ দেন। বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমানের আদালতে আসামিপক্ষ আজ সোমবার জামিনের আবেদন জানান। আদালত তাঁকে জামিনে মুক্তির নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে জামিন–উত্তর ব্যবস্থাগুলো বিচারক নিজেই সম্পন্ন করেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন