বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে এ সময় কনের বাবাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। একই সঙ্গে ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবেন না বলে আদালতে মুচলেকা দেন ছাত্রীর বাবা।

ইউএনও মুনমুন জাহান বলেন, ওই পরিবার সচ্ছল। ছাত্রীর বাবা স্কুলশিক্ষক। একজন সচেতন মানুষ হওয়ার পরও তিনি বাল্যবিবাহের আয়োজন করেন। গ্রামটি দুর্গম। রাতে প্রায় এক কিলোমিটার হেঁটে ওই বাড়িতে পৌঁছতে হয়। আবার যাতে গোপনে ওই ছাত্রীকে অন্য কোথাও বিয়ে দেওয়া না হয়, সে বিষয়ে খোঁজ রাখা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন