আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, জালের মধ্যে ইলিশ মাছ দেখে তাঁরা সবাই হতবাক হয়ে যান। মুহূর্তের মধ্যে আশপাশের লোকজন পুকুরে পাওয়া ইলিশ দেখতে সেখানে ভিড় জমান। মাছগুলোর প্রতিটির ওজন ২০০ থেকে ৪০০ গ্রাম।

আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, গত বছর ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের সময় এই ইলিশগুলো জোয়ারের পানিতে পুকুরে ভেসে এসেছে বলে তাঁরা ধারণা করছেন। পুকুর সেচা শেষ হলে হয়তো আরও ইলিশ মাছ পাওয়া যেতে পারে। গতকাল পাওয়া ইলিশগুলো অন্যান্য মাছের সঙ্গে বিক্রির জন্য আজ শনিবার ঢাকায় পাঠিয়ে দিয়েছেন।

default-image

নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান নুরুল আফছার যুগান্তর কিল্লার পুকুরে ইলিশ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গত বছর ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের সময় নিঝুম দ্বীপের সব কটি পুকুর জোয়ারের পানিতে তলিয়ে যায়। তাই জোয়ারের পানির সঙ্গে হয়তো এসব ইলিশ ওই পুকুরে ঢুকেছে।

হাতিয়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা অনিল কুমার দাশ প্রথম আলোকে বলেন, তিনি বর্তমানে হাতিয়ার বাইরে আছেন। তবে নিঝুম দ্বীপের পুকুরে ধরা পড়া ইলিশের ভিডিও দেখেছেন। ধরা পড়া মাছগুলো ইলিশের মতোই। তবে আকারে ছোট। জোয়ার কিংবা জলোচ্ছ্বাসের পানিতে প্লাবিত পুকুরে ইলিশ ঢুকে পড়তে পারে। কয়েক বছর আগে ভোলার মনপুরায় জোয়ারের পানিতে ভেসে যাওয়া পুকুরে চারটি ইলিশ পাওয়া গিয়েছিল জানান তিনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন