default-image

ইজারামূল্য পরিশোধ করার নির্ধারিত সময়সীমা পেরিয়ে গেলেও সুনামগঞ্জের ধরমপাশা উপজেলায়  ছয়টি হাটবাজারের ইজারাদারেরা ইজারার টাকাসহ অন্যান্য পাওনাদি এখনো পরিশোধ করেননি। এতে সরকারি রাজস্ব আদায় বিঘ্নিত হচ্ছে।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, এ উপজেলায় ১২টি হাট-বাজার রয়েছে। ১৪২৮ বঙ্গাব্দের ১ বৈশাখ থেকে ওই বঙ্গাব্দের ৩০ চৈত্র পর্যন্ত এক বছর মেয়াদে হাটগুলো ইজারা দেওয়ার জন্য উপজেলা প্রশাসন দরপত্র আহ্বান করে। দরপত্রের মাধ্যমে উপজেলার মধ্যনগর বাজারটি ৭১ লাখ টাকায় ইসতিয়াক হোসেন চৌধুরী, মহেশখলা বাজারটি ৩১ লাখ ৬৩ হাজার টাকায় আজিজুর রহমান, গোলকপুর বাজারটি ৭৫ হাজার টাকায় রাকিব উল্লাহ, ভোলাগঞ্জ বাজারটি ১ লাখ ৬ হাজার ৩০০ টাকায় আবদুল মোতালেব, বাদশাগঞ্জ বাজারটি ৩ লাখ ১৫ হাজার টাকায় ইমরান হোসেন, বংশীকুণ্ডা বাজারটি ১ লাখ ৪১ হাজার টাকায় হিরণ মিয়া সর্বোচ্চ দরপত্রদাতা হিসেবে নির্বাচিত হন। এ ছাড়া ধরমপাশা বাজারটি মামলাজনিত কারণে উচ্চ আদালতের স্থগিতাদেশ রয়েছে।

জয়শ্রী বাজার, সানবাড়ী বাজার, রাজাপুর বাজার, পাইকুরাটি বাজার ও গাছতলা বাজারটির দরপত্র ইজারা নিতে কেউ অংশ নেয়নি। হাটবাজার ইজারা পাওয়া সর্বোচ্চ দরপত্রদাতাদের কর চিঠি প্রাপ্তির সাত কার্যদিবসের মধ্যে ইজারামূল্য, ভ্যাট, আয়করসহ যাবতীয় পাওনা পরিশোধের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মুনতাসির হাসান ১০ মার্চ চিঠি দেন। ১৯ মার্চের মধ্যে যাবতীয় পাওনাদি পরিশোধ করার কথা ছিল। কিন্তু নির্ধারিত সময়ে কোনো ইজারাদারই ইজারামূল্যসহ অন্যান্য পাওনা পরিশোধ করেননি।

বিজ্ঞাপন

হাটবাজার ইজারার শর্তাবলির ৫ নম্বর শর্তে উল্লেখ করা হয়, যার দরপত্র গৃহীত হবে, তিনি সংবাদ অবহিত হওয়ার সাত কার্যদিবসের মধ্যে দরপত্রে উল্লেখিত দরের অবশিষ্ট ৭৫ ভাগ অর্থ এবং দাখিলকৃত দরের ওপর অতিরিক্ত শতকরা ১৫ টাকা ভ্যাট ও শতকরা ৫ টাকা আয়কর অবশ্যই একই সঙ্গে পরিশোধ করবেন। অন্যথায় জামানত বাজেয়াপ্তপূর্বক পুনরায় ইজারা কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে। নির্ধারিত সময়ে ইজারামূল্য পরিশোধ না করায় ২১ মার্চ এই ছয়টি হাট-বাজারের ছয়জন ইজারাদারকে নোটিশ প্রাপ্তির তিন কার্যদিবসের মধ্যে ইজারামূল্য পরিশোধ করতে চূড়ান্ত নোটিশ দেন ইউএনও। ২৫ মার্চ ইজরাদারেরা চূড়ান্ত নোটিশ বুঝে পান।

চূড়ান্ত নোটিশে উল্লেখ ছিল, নোটিশ প্রাপ্তির তিন কার্যদিবসের মধ্যে সমুদয় পাওনা পরিশোধ না করা হলে দরপত্রের সঙ্গে সংযুক্ত ব্যাংক ড্রাফট/পে-অর্ডার সরকারের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করে হাটবাজারের ইজারা বাতিল করা হবে। পরবর্তী ধার্য তারিখে পুনঃদরপত্র গ্রহণ করা হবে। চূড়ান্ত চিঠি পেয়ে ছয়জন ইজারাদারের মধ্যে গোলকপুর বাজারের ইজারাদার যাবতীয় পাওনাদি আজ সোমবার পরিশোধ করেছেন।
মধ্যনগর বাজারের ইজারাদার ইসতিয়াক হোসেন চৌধুরী বলেন, নানা ঝামেলায় নির্ধারিত সময়ের মধ্যে মধ্যনগর বাজারের যাবতীয় পাওনা পরিশোধ করা সম্ভব হয়নি। খুব শিগগিরই পাওনাদি পরিশোধ করা হবে।

সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনাবিষয়ক সম্পাদক জুবায়ের পাশা ওরফে হিমু বলেন, এ উপজেলার হাটবাজারের দরপত্র ইজারা থেকে মোটা অঙ্কের অর্থ রাজস্ব অর্জিত হয়। সরকারদলীয় ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে বেআইনিভাবে কেউ যাতে হাটবাজার ইজারার টাকা পরিশোধ করার সুযোগ না পায় এ জন্য প্রশাসনকে বিষয়টির ওপর নজর দিতে হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মুনতাসির হাসান প্রথম আলোকে বলেন, এ উপজেলায় ১২টি হাটবাজার রয়েছে। এর মধ্যে ৬টির ইজারা হয়েছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে হাট-বাজার ইজারাদারেরা ইজারামূল্য পরিশোধ না করায় তাঁদের চূড়ান্ত নোটিশ দেওয়া হয়। এরপরও পাওনাদি পরিশোধ না করায় জেলা প্রশাসক মহোদয়ের সঙ্গে কথা বলে দ্রুত এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন