default-image

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলায় একটি নির্মাণাধীন ভবনে পড়ে ছিল কিশোরের লাশ। বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১১টার দিকে উপজেলার চিনিশল্লা গ্রাম থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত কিশোরের নাম তাজেমুল হক (১৫)। সে গোমস্তাপুর উপজেলার কালুপুর গ্রামের গোলাম মোস্তফার ছেলে। তাজেমুল নাচোল মুন্সি হজরত আলী উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

নিহত তাজেমুলের নানা আবদুল ওহাব বলেন, তাজেমুল তাঁর বাড়িতে থেকে অটোরিকশা চালিয়ে একবেলা অর্থ উপার্জন করত, আরেক বেলা স্কুলে পড়াশোনা করত। বৃহস্পতিবার সে গাড়ি নিয়ে বের হয়। বেলা দুইটার দিকে তাজেমুলের সঙ্গে শেষ কথা হয় তাঁর। তখন সে জানিয়েছিল, নেজামপুরে আছে। সন্ধ্যায় তাজেমুলকে বাড়ি ফেরার জন্য মুঠোফোনে কল দিয়ে বন্ধ পান তিনি। এরপর তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। একপর্যায়ে চিনিশল্লা গ্রামের মো. কেতাবুলের নির্মাণাধীন ভবনে মাটি ও বালুর নিচে তাজেমুলের লাশ পাওয়া যায়।

বিজ্ঞাপন

নাচোল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম রেজা জানান, নিহত ওই কিশোরের মুখমণ্ডল ও মাথায় আঘাতের চিহ্ন ছিল। তার গলায় রশি প্যাঁচানোর দাগও দেখা গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, মাথায় আঘাতের পর শ্বাস রোধ করে তাকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় শুক্রবার তাজেমুল হকের বড় ভাই নাইমুল হক বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেছেন।

মন্তব্য পড়ুন 0